আজ শনিবার, ১২ ফাল্গুন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ খ্রিস্টাব্দ
 / নারী / প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ থেকে নারী পাইলট হিসেবে যাচ্ছেন তামান্না ও নাইমা
প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ থেকে নারী পাইলট হিসেবে যাচ্ছেন তামান্না ও নাইমা
নতুন বার্তা, ঢাকা:
Published : Monday, 4 December, 2017 at 7:49 PM
প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশ থেকে নারী পাইলট হিসেবে যাচ্ছেন তামান্না ও নাইমাকঙ্গোতে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দুর্গম ও ভিন্ন পরিবেশের কাজকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর দুই নারী পাইলট- ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট নাইমা হক এবং তামান্না-ই-লুৎফী। নিষ্ঠা ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে সফলভাবে মিশন শেষ করে দেশে ফিরে আসবেন বলেও প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা।
হেলিকপ্টারে ওঠার আগে পাইলট নাইমা ও তামান্না সোমবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা সেনানিবাসে বিমান বাহিনীর ঘাঁটি বাশার-এ উপস্থিত সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন এই দুই নারী পাইলট।
মিশনে বিমান বাহিনীর আরও নারী সদস্য  থাকলেও এই প্রথমবারের মতো দুই নারী পাইলট নাইমা হক এবং তামান্না-ই লুৎফী কঙ্গোতে শান্তিরক্ষা মিশনে যোগ দিতে  আগামী বৃহস্পতিবার (৭ ডিসেম্বর) রাতে বাংলাদেশ ছেড়ে যাবেন। সেখান তারা থাকবেন একবছর। কঙ্গোতে হেলিকপ্টারের পাইলট হিসেবে শান্তিরক্ষা মিশনে অন্যদের কাজে সহায়তা করবেন তারা।
ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট নাইমা হক সাংবাদিকদের বলেন, ‘দুর্গম ও ভিন্ন পরিবেশে কঙ্গোতে কাজ করতে হবে। সেজন্য বাংলাদেশ বিমান বাহিনী আমাদের অনেক প্রশিক্ষণ দিয়েছে। কঙ্গোর পাহাড়ি অঞ্চলে দায়িত্ব পালনের জন্য এরই মধ্যে আমরা বাংলাদেশের পার্বত্য অঞ্চলে ফ্লাই করে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। এছাড়া, আমরা বিভিন্ন ধাপে প্রশিক্ষণ নিয়েছি। এবারই প্রথমবারের মতো   কঙ্গোতে যাচ্ছি।’
তিনি বলেন, ‘গত ১৪ বছর ধরে বিমান বাহিনী জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে কাজ করে আসছে। গত সাত বছর যাবত বিমান বাহিনীর নারী সদস্যরা কাজ করছেন। কিন্তু প্রথমবারের মতো আমরা দুই পাইলট সেখানে যাচ্ছি।’
নাইমা হক আরও বলেন, ‘আমরা সামরিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। বৈরি পরিবেশে কিভাবে কাজ করতে হবে সে বিষয়ে আমাদের প্রশিক্ষণ রয়েছে।’ সব ধরনের বৈরি পরিবেশ ও পরিস্থিতি মোকাবিলায় সবার দোয়া কামনা করেন তিনি। পাইলট হিসেবে তাদের মিশনে যাওয়া নিয়ে স্বজনদের প্রতিক্রিয়া কী জানতে চাইলে নাইমা হক বলেন, ‘স্বজন হিসেবে নার্ভাসনেসতো থাকবেই। তবে পরিবারের সদস্যরা এ নিয়ে গর্বিত। তারা আমাদের উৎসাহ দিয়েছেন।’
যারা এমন চ্যালেঞ্জিং পেশা নিতে চান সেসব নারীর উদ্দেশে তাদের পরামর্শ সম্পর্কে জানতে চাইলে ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট তামান্না-ই লুৎফী বলেন, ‘কঠোর পরিশ্রমের কোনও বিকল্প নেই। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একটি ডায়নামিক ও অপারেশনাল ফোর্স। এয়ারফোর্সেও অনেক সুযোগ আছে। এখানে মেয়েদের কাজ করার পরিবেশ খুবই চমৎকার। বিমান বাহিনীর পক্ষ থেকে এখানে আমাদের সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হয়েছে। কারও কাজ করার ইচ্ছা থাকলে অবশ্যই তারা স্বাচ্ছন্দ্যে এখানে আসতে পারেন। অবশ্যই আমরা দেশের প্রতিরক্ষার জন্য কাজ করছি। এটা বড় সম্মান ও গৌরবের বিষয়।’
তিনি জানান, বিমানবাহিনীতে বর্তমানে তারা তিন কর্মকর্তা হেলিকপ্টারে রয়েছেন। তিন জন রয়েছেন ট্রান্সপোর্টে। আরও কিছু নারী প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন।
সাংবাদিকদের সঙ্গে মত বিনিময় শেষে  ‍দুই নারী পাইলট হেলিকপ্টার উড্ডয়নের মহড়ায় অংশ নেন।
এদিকে, আইএসপিআর জানায়, ২০০০ সালে প্রথম বাংলাদেশ বিমান বাহিনীসহ সামরিক বাহিনীতে নারী কর্মকর্তা নিয়োগ শুরু হয়। সময়ের পরিক্রমায় বর্তমানে বিমান বাহিনীর বিভিন্ন শাখায় নারী কর্মকর্তারা কাজ করছেন। তারা জাতিসংঘসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পেশাদারিত্ব ও দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়েছেন। আর এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ বিমান বাহিনী দু’জন নারী পাইলটকে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োগ দিয়েছে।
প্রয়োজনীয় যাচাই-বাছাইয়ের পর বিমান বাহিনীর দুই নারী কর্মকর্তা ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট নাইমা হক এবং ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট তামান্না-ই-লুৎফী উড্ডয়ন প্রশিক্ষণের জন্য মনোনীত হন। বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ঘাঁটি বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমানের ১৮ নম্বর স্কোয়াড্রনে বেল-২০৬ হেলিকপ্টারে বেসিক কনভারশন কোর্সের জন্য মনোনীত হওয়া এই দুই নারী কর্মকর্তা ২০১৪ সালের ৩ আগস্ট থেকে তাদের গ্রাউন্ড প্রশিক্ষণ শুরু করেন। একই বছরের ২৩ সেপ্টেম্বর প্রথমবারের মতো তাদের উড্ডয়ন প্রশিক্ষণ শুরু করেন। পরবর্তীতে ২৫ ঘণ্টা সফল প্রশিক্ষণ উড্ডয়ন শেষ করেন তারা। ওই বছরের ১৭ ডিসেম্বর তারা বৈমানিক হয়ে ওঠার প্রাথমিক ধাপের একটি অংশ শেষ করে এককভাবে উড্ডয়ন করেছেন।
এরপর তারা ৬৫ ঘণ্টা উড্ডয়নের প্রাথমিক ধাপ শেষ করার পর বিমান বাহিনীর বিভিন্ন হেলিকপ্টার স্কোয়াড্রনে দায়িত্ব পালন করেন। নাইমা ও তামান্না বেল-২০৬ হেলিকপ্টার কনভারশন কোর্স, এমআই-১৭, এমআই-১৭১ এবং এমআই-১৭১ এসএইচ হেলিকপ্টার প্রশিক্ষণ শেষ করেন। তারা ভারত থেকে এভিয়েশন মেডিসিনে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। দু’জনই পার্বত্য চট্টগ্রামে অপারেশন্স উত্তরণে অপারেশনাল পাইলট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।
সাবেক কৃষি কর্মকর্তা নাজমুল হক ও গৃহিণী নাসরীন বেগমের মেয়ে নাইমা হক ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট হিসেবে ২০১১ সালের ১ ডিসেম্বর কমিশন লাভ করেন। এরআগে ২০১০ সালের ১০ জানুয়ারি তিনি ক্যাডেট হিসেবে প্রশিক্ষণ শুরু করেন। হলিক্রস স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি শেষ করে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস থেকে তিনি বিএসসি কোর্স শেষ করেন।
অন্যদিকে বিমান বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত গ্রুপ ক্যাপ্টেন লুৎফর রহমান ও গৃহিণী আয়েশা সিদ্দিকার মেয়ে তামান্না-ই-লুৎফী বিএএফ শাহীন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি শেষ করে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস থেকে বিএসসি কোর্স শেষ করেছেন।
দেশের গণ্ডি পেরিয়ে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নারী পাইলট নিয়োগ নারীর ক্ষমতায়ন ও সামরিক বাহিনীর ইতিহাসে একটি মাইল ফলক হিসেবে কাজ করবে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।  ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োজিত তিনটি কন্টিনজেন্টে বিমান বাহিনীর মোট ৩৫৮ জন শান্তিরক্ষী রয়েছে। এদের মধ্যে পাইলট নাইমা ও তামান্নাকে নিয়ে নারী অফিসারের সংখ্যা দাঁড়াবে ১৫ জনে।
আইএসপিআর আরও জানায়, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে প্রতিস্থাপন কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিমান বাহিনীর ১১৫ জন সদস্য গত বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) কঙ্গোর উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন। কন্টিনজেন্টের অন্য সদস্যরা আগামী ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে পর্যায়ক্রমে কঙ্গোতে যাবেন।
নারী পাইলট নাইমা ও তামান্নাকে  সাংবাদিকদের সামনে পরিচয় করিয়ে দেন বিমান বাহিনীর গ্রুপ ক্যাপ্টেন মো. মিরাজ পাটোয়ারী।


পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ


 
কলেজ ছাত্র কর্তৃক দিনমজুরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণ: ধর্ষক গ্রেফতার
কলেজ ছাত্র কর্তৃক দিনমজুরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণ: ধর্ষক গ্রেফতার
সুনামগঞ্জর তাহিরপুরে তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ুয়া এক স্কুল ছাত্রীকে শুক্রবার সন্ধায় ধর্ষণ করেছে কলেজ ছাত্র।’ ধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীকে রাতেই আশংকাজনক সিলেট ...
জয় নিশ্চিত জেনে আ. লীগের মনোনয়ন চায় ১০ হাজার নেতা!
জয় নিশ্চিত জেনে আ. লীগের মনোনয়ন চায় ১০ হাজার নেতা!
৩০০ আসনে অন্তত ১০ হাজার নেতা রয়েছেন, যারা মনোনয়ন নিশ্চিত করতে তদবিরে ব্যস্ত রয়েছেন। মাঠের রাজনীতিতে শক্ত অবস্থান রয়েছে, মনোনয়ন ...
ঠাকুরগাঁওয়ে ৪ লেন রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
ঠাকুরগাঁওয়ে ৪ লেন রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ
সড়ক ও জনপদ বিভাগ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের ঘোষণা দিলেও জমি অধিগ্রহণের কোনো কাগজপত্র দেখাতে পারেনি বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।অন্যদিকে কর্তৃপক্ষ বলছে, ...
গ্রন্থমেলায় কণা জাহিদের ‘মেঘ বালিকা
গ্রন্থমেলায় কণা জাহিদের ‘মেঘ বালিকা
এবারের গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে কণা জাহিদের কবিতার বই ‘মেঘবালিকা’। সাহিত্য কথা প্রকাশনী থেকে কাব্যগ্রন্থটি প্রকাশিত হয়েছে। বইটি গ্রন্থমেলার ৬৩৩নং স্টলে ...
সমুদ্রে ৮১ হাজার বর্গমাইল এই এলাকাকে সংরক্ষিত রাখার বিনিময়ে ঋণে মাফ পেল সেশেলস
সমুদ্রে ৮১ হাজার বর্গমাইল এই এলাকাকে সংরক্ষিত রাখার বিনিময়ে ঋণে মাফ পেল সেশেলস
ভারত মহাসাগরের বুকে এক বিরাট এলাকাকে সংরক্ষিত রাখতে রাজি হয়েছে সেশেলস, যে এলাকার আয়তন গ্রেট ব্রিটেনের সমান।প্রায় ৮১ হাজার বর্গমাইল ...
আওয়ামী লীগ চায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নির্বাচনে আসুক: স্বাস্থ্য মন্ত্রী নাসিম
আওয়ামী লীগ চায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নির্বাচনে আসুক: স্বাস্থ্য মন্ত্রী নাসিম
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, আওয়ামী লীগ চায় খালেদা জিয়াসহ বিএনপি নির্বাচনে আসুক। আদালত খালেদা জিয়ার শাস্তি ...
বেনাপোলে ৬ জেলার মানচিত্র ও পর্চাসহ দুই ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী আটক
বেনাপোলে ৬ জেলার মানচিত্র ও পর্চাসহ দুই ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী আটক
ভারতে পাচারের সময় বেনাপোল চেকপোস্ট থেকে বাংলাদেশের ছয় জেলার ২শ’ মানচিত্র ও পর্চা জব্দ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ...
পল্লবী থানায় পোশাককর্মী ধর্ষণের অভিযোগে আটক ২
পল্লবী থানায় পোশাককর্মী ধর্ষণের অভিযোগে আটক ২
রাজধানীর পল্লবীতে ২০ বছর বয়সী এক পোশাককর্মীকে ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে পল্লবী থানায়। পুলিশ ওই পোশাককর্মীকে উদ্ধার করে হেফাজতে নিয়েছে। ...
বাগেরহাটে ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধে উপকরণ প্রদান (ভিডিও)
বাগেরহাটে ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধে উপকরণ প্রদান (ভিডিও)
ভিক্ষুক মুক্তকরণ, ভিক্ষুকদের কর্মসংস্থান ও পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধে ভিক্ষুকদের অনুদান ও উপকরণ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ...
১০
থানায় মাদক ব্যবসা, ২ এসআইসহ ৫ পুলিশ ক্লোজড
থানায় মাদক ব্যবসা, ২ এসআইসহ ৫ পুলিশ ক্লোজড
কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার মালখানা থেকে মাদক বিক্রি ও ডিবি পুলিশ পরিচয়ে পল্লী চিকিৎসককে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে থানার দুই এসআইসহ ...
 
বেসিসের সাবেক সভাপতি বেসিসের গঠনতন্ত্র পড়েননি বলে বর্তমান পরিচালকের মন্তব্য
বেসিসের সাবেক সভাপতি বেসিসের গঠনতন্ত্র পড়েননি বলে বর্তমান পরিচালকের মন্তব্য
বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার এন্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর সাবেক সভাপতি ফাহিম মাসরুর বেসিসের গঠনতন্ত্র পড়েননি বলে বর্তমান পরিচালক দেলোয়ার ...
পার্বতীপুরে ছোট যমুনা নদীর উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
পার্বতীপুরে ছোট যমুনা নদীর উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ
দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ছোট যমুনা নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। আজ সোমবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে এ উচ্ছেদ অভিযান ...
ঝালকাঠির রানাপাশা ইউপি চেয়ারম্যানের যৌনকামনা থেকে বাঁচতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর আকুতী
ঝালকাঠির রানাপাশা ইউপি চেয়ারম্যানের যৌনকামনা থেকে বাঁচতে এসএসসি পরীক্ষার্থীর আকুতী
নলছিটি উপজেলার রানাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান, আ’লীগ নেতা,  নারীলোভী ও ল্যম্পট মাসুদুর রহমান ছালাম (৪৫) এর যৌনকামনা চরিতার্থ ও লোলুপ দৃষ্টি ...
রায়ের সার্টিফাইড কপি নিয়েও ‘চক্রান্ত’ চলছে বলে বিএনপির দাবী
রায়ের সার্টিফাইড কপি নিয়েও ‘চক্রান্ত’ চলছে বলে বিএনপির দাবী
এক সপ্তাহ হলো জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় হয়েছে। ৫ বছরের সাজা নিয়ে কারান্তরীণ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রায়ের দিনই ...
তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা নিয়ে বিতর্ক
তারেক রহমানকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা নিয়ে বিতর্ক
লন্ডনে চিকিৎসাধীন তারেক রহমানকে ‘ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান’ করায় বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে আওয়ামীলীগ পন্থি বুদ্ধিজীবি ও আওয়ামীলীগের নেতারা এই বিষয়ে ...
এটা (দন্ড) রাজনৈতিকভাবে হেয় করা ছাড়া আর কিছুই নয়: ইঞ্জি. মোঃ আবু সাঈদ জনি
এটা (দন্ড) রাজনৈতিকভাবে হেয় করা ছাড়া আর কিছুই নয়: ইঞ্জি. মোঃ আবু সাঈদ জনি
বিএনপির চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদন্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন, জাতীয়তাবাদী টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ...
প্রতিবেশীদের মাঝে বাংলাদেশই শুধু ভারতকে গুরুত্ব দিচ্ছে
প্রতিবেশীদের মাঝে বাংলাদেশই শুধু ভারতকে গুরুত্ব দিচ্ছে
প্রতিবেশীদের কাজে লাগিয়ে ভারতকে একরকম ঘিরে ফেলার যে আগ্রাসী নীতি নিয়ে চলছে চীন, তাতে এ পর্যন্ত একমাত্র বড় ব্যতিক্রম বাংলাদেশ। ...
ইসরাইল রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ও রহস্যে ঘেরা পরিবার ‘রথসচাইল্ড’
ইসরাইল রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ও রহস্যে ঘেরা পরিবার ‘রথসচাইল্ড’
রথচাইল্ড পরিবার টাকার জোরে ইহুদী রাষ্ট্র ইসরাইলের প্রতিষ্ঠা করেন। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্যারন রথসচাইল্ড ব্রিটিশ সরকারকে লোন দেন এই শর্তে, ...
প্রথম শ্রেণির বন্দি হিসেবে কারাগারে যেসব সুবিধা পাবেন খালেদা জিয়া
প্রথম শ্রেণির বন্দি হিসেবে কারাগারে যেসব সুবিধা পাবেন খালেদা জিয়া
প্রথম শ্রেণির বন্দি হিসেবে কারাগারে সব ধরনের সুবিধা পাবেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তবে সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার চাহিদাকেও গুরুত্ব ...
১০
ফেসবুকে ফাঁস হওয়া হুবহু প্রশ্নে এসএসসি ২০১৮ গণিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত
ফেসবুকে ফাঁস হওয়া হুবহু প্রশ্নে এসএসসি ২০১৮ গণিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত
আবারও এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ৬ষ্ঠ  দিন গণিত বিষয়ের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ ...
ইউসুফ আহমেদ (তুহিন)
৭৯/বি, ব্লক বি, এভিনিউ ১, সেকশান ১২, মিরপুর, ঢাকা ১২১৬, বাংলাদেশ
বার্তাকক্ষ : +৮৮০১৯১৫৭৮৪২৬৪, ই-মেইল editor@natun-barta.com, Web : www.Natun-Barta.com.com